বুক ধড়ফড় মানেই কী হার্ট অ্যাটাক ( হৃদযন্ত্রের ) সমস্যা? symptoms of heart blockage.

বুক ধড়ফড় মানেই কী হার্ট অ্যাটাকের সমস্যা?

symptoms of heart blockage


আজকে আমরা কথা বলব বুক ধড়ফড় সমস্যা নিয়ে। অনেকেই মনে করেন যে বুক ধড়ফড় মানেই হচ্ছে হার্টের সমস্যা কিন্তু সব ক্ষেত্রে কিন্তু তা না।


অনেক ক্ষেত্রে হার্টের সমস্যা হল, আমাদের কাছে বুক ধড়ফড় নিয়ে যারা আসেন বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় হার্ট ছাড়া অন্যান্য সমস্যা।


বুক ধড়ফড় মানেই কী হার্ট অ্যাটাক ( হৃদযন্ত্রের ) সমস্যা ?

আসুন আমরা জেনে নেই কি কি কারণে বুক ধড়ফড় করতে পারে।

প্রথমত সবচেয়ে বেশি যে কারণ আমরা পাই সেটি হচ্ছে অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা। এই ক্ষেত্রে সাধারণত কম বয়সী পুরুষদের সাথে মহিলারা ( symptoms of heart blockage in females ) সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়। এছাড়া দুশ্চিন্তার কারণ ছাড়া অনান্য বিভিন্ন কারণ গুলো আছে। সেগুলোর মধ্যে common হলো-


হাইপার থাইরড থাইরকস্কিওসিস। এক্ষেত্রে থাইরয়েডে হরমোন যদি বেশি বেশি করে নিঃসরণ হতে থাকে সেক্ষেত্রে এটাকে থাইরকস্কিওসিস বলে। এক্ষেত্রে বুক ধড়ফড় সমস্যা হতে পারে।


এছাড়া বিভিন্ন কারণে হয়তো আপনি খুব এনজাইটির মধ্যে আছেন, দৌড়া-দৌড়ি করছেন, খেলাধুলা করছেন বা অস্থির হয়ে আছেন কোন কারণে সেক্ষেত্রে কিন্তু বুক ধড়ফড় করতে পারে।


এছাড়া বিভিন্ন হার্টের সমস্যার জন্য বুক ধড়ফড় করতে পারে। তার মধ্যে একটি হচ্ছে আমরা বলে বিভিন্ন রকমের Erythema আছে। 

হার্ট টু হার্ট আমাদের যেভাবে বিট করে, যেভাবে সংকোচন-প্রসারণ করে তার নিয়মের যদি কোনো ব্যত্যয় ঘটে অনেক কারণ আছে  সেক্ষেত্রে বুক ধড়ফড় হতে পারে।


এছাড়া হার্টে যদি Structural কোন সমস্যা থাকে হার্টের ভাল্বে যদি কোনো সমস্যা থাকে তাহলে বুক ধড়ফড় হতে পারে। 

এছাড়াও হতে পারে আপনার Coronary heart disease বা Stemt heart disease এগুলো যদি থাকে যা কোনো কারণে হার্টের রক্তনালীতে ব্লক হয়ে আছে ঠিকমত রক্ত চলাচল করতে পারছে না এক্ষেত্রে অনেক সময় রোগীদের এরকম বুক ধড়পড় হতে পারে। 

আবার অনেক ক্ষেত্রে অতিরিক্ত পরিমাণে চা-কফি এবং ক্যাফিন জাতীয় খাবার খেলেও কিন্তু বুক ধড়পড় সমস্যা হতে পারে।


তাহলে বুক ধড়ফড় করা রোগের চিকিৎসা কি?

( heart problem symptoms in females ) 

এক্ষেত্রে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই চিকিৎসা হচ্ছে কারণ তাকে প্রতিহত করা। যেমন আপনি যদি অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা গ্রস্ত হন, অবসাদগ্রস্ত হন সেক্ষেত্রে দুশ্চিন্তার কারণ খুঁজে বের করে তার চিকিৎসা করতে হবে। 

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আসলে আমাদের ওষুধপত্র ছাড়া শুধুমাত্র সাইকোথেরাপিতে কিন্তু এ রোগ ভালো হয়ে যায়।

এসব পেসেন্টের ক্ষেত্রে খুব কম ক্ষেত্রে আমাদের ঔষধের আশ্রয় নিতে হয় এছাড়া যাদের থাইরয়েডের সমস্যা আছে তারা থাইরয়েডের চিকিৎসা করলে এবং অন্যান্য যাদের বিভিন্ন অন্য রোগের জন্য যেমন জ্বর বা প্রেগনেণ্সি এগুলো যদি ভালো হয়ে যায় তখন দেখা যাচ্ছে বুক ধড়ফড় রোগটাও ভালো হয়ে যায়। 

আর হার্টের সমস্যার জন্য যারা আছেন তাদের ক্ষেত্রে যাদের রক্তনালীতে সমস্যা থাকে সেক্ষেত্রে সঠিক চিকিৎসা করা এছাড়া অনেক ক্ষেত্রে রক্তনালীতে বা ভাল্বের সমস্যা ছাড়াও বিভিন্ন কারণে এরকম বুক ধড়ফড় হতে পারে


সেক্ষেত্রে আমরা EP Study বলি Eutrophic logical study সেক্ষেত্রে ঐটুকু করা লাগতে পারে।
এগুলো ছাড়াও আরেকটি কারণ বুক ধড়ফড় করতে পারে। সেটাকে আমরা বলি Super Ventricular Cafe Cardia অনেক সময় কোনো কারণ ছাড়াই এরকম Super Ventricular Cafe Cardia হতে পারে।


এটি একটি সিরিয়াস রোগ এক্ষেত্রে আসলে আমাদেরকে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে। 

আপনারা সুস্থ থাকুন ভালো থাকুন এবং যেকোন সমস্যার জন্য পাড়ার ফার্মেসির কাছ থেকে ওষুধ না খেয়ে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। ডাক্তার মানেই ঔষধ নয় অনেক সময় সঠিক পরামর্শতেও ভালো হয়ে যেতে পারেন।

সবাই ভালো থাকবেন এবং সেই সাথে স্বাস্থ্য-সেবা সম্পর্কিত আমার অনান্য লেখগুলো দেখে নিতে পারেন। হয়তো আপনার কোনো কাজে আসতে পারে।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url